বুধবার , অক্টোবর ২০ ২০২১

বীরগঞ্জে সুদের বোঝা বহন করতে না পেরে শিক্ষকের আত্মহত্যা

মো. তোফাজ্জল হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জের সাতোর ইউনিয়নের বাসিন্দা ২৮ মাইল বাজারে ঔষধ ফার্মেসির মালিক, দলুয়া স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী প্রধান শিক্ষক হরেন্দ্র রায় দাদন ব্যবসায়ীদের অমানুষিক নির্যাতনে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছে বলে দাবি করেছেন নিহতের পরিবার সহ স্থানীয়রা। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ১১ অক্টোবর ২১ইং দিবাগত রাতে শিক্ষক হরেন্দ্র রায় বাড়িতে না ফেরায় সকালে তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ের কথা মত ছেলে পার্থ ২৮ মাইলে ঔষধের দোকানে গিয়ে দেখতে পায় ভিতরে তার বাবার লাশ ফাঁসিতে ঝুলানো রয়েছে। সুদের বোঝা বহন করতে না পেরে ও সুদারুদের হুমকি-ধামকি সহ্য না হওয়ায় মৃত্যুর পথ বেছে নিয়েছে বলে তাদের ধারণা।

প্রত্যক্ষদর্শী ছেলে পার্থ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য নাসির জানান, আলামত হিসেবে আত্মহত্যা পূর্বে শিক্ষকের নিজ হাতে লিখে রাখা সুদারুদের নাম সম্বলিত একটি টেবিল জব্দ করেছেন পুলিশ। উক্ত টেবিলে ৪/৫ জনের নাম উল্লেখ রয়েছে। সংবাদ পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বীরগঞ্জ সার্কেল মো. আব্দুল ওয়ারেস, বীরগঞ্জ থানার ওসি মো. আব্দুল মতিন প্রধান সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দিনাজপুর-১ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল মানুষিক নির্যাতনের শিকার আত্মহত্যাকারী শিক্ষকের বাড়ি পরিদর্শনে গিয়ে মর্মান্তিক এ ধরনের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি অবিলম্বে দাদন ব্যবসায়ী তথা সুদখোরদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনকে নির্দেশ দেন। একই সাথে তিনি বলেন, এদের বিরুদ্ধে এলাকার সকলকে সজাগ থাকা দরকার। এরা যে দলেরই হোক না কোন ছাড় দেয়া হবে না। ওসি মো. আব্দুল মতিন প্রধান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

About বীরগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর

Check Also

বীরগঞ্জে ইঁদুর নিধন অভিযানের শুভ উদ্বোধন

মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে আসুন, সম্পদ ও ফসল রক্ষায় সম্মিলিতভাবে ইঁদুর নিধন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *