বুধবার , অক্টোবর ২০ ২০২১

অপহরণের পর মুক্তিপণ চাওয়া সিআইডির ২ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত

দিনাজপুর সংবাদদাতাঃ দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় মা-ছেলেকে অপহরণের পর মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে গ্রেপ্তার রংপুর সিআইডির তিন কর্মকর্তার মধ্যে দুজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এই দুজন হলেন সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) হাসিনুর রহমান ও কনস্টেবল আহসানুল হক।

শনিবার বেলা তিনটায় রংপুর সিআইডির ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার (এসপি) আতাউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘মৌখিকভাবে শুনেছি অপহরণের ঘটনায় দুজনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তবে এ–সংক্রান্ত কোনো চিঠি পাইনি।’

এদিকে অপহরণের ঘটনায় মামলার তদন্তের স্বার্থে বাদী জাহাঙ্গীর আলমের বাবা লুৎফর রহমানকে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে চিরিরবন্দর থানা-পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনে। ঘটনার পর থেকে লুকিয়ে থাকার কারণ জানতে চাইলে লুৎফর বলেন, ‘আমি যখন জানতে পারি, প্রশাসনের লোকজনই আমার পরিবারের সদস্যকে তুলে নিয়ে গেছে এবং মুক্তিপণ দাবি করছে, তখন আমি নিরাপত্তাহীনতায় ছিলাম। ভয়ে আত্মগোপনে ছিলাম।’

বিকেলে আদালতের কাছে বক্তব্য দিচ্ছেন ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও বাদী জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী শারমিন আক্তার এবং আটকের সময় দিনাজপুরের দশমাইলে ঘটনাস্থলে থাকা আইনুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি। দিনাজপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাশেদুল আমিন তাঁদের বক্তব্য নেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (চিরিরবন্দর-৪) আদালতে সিআইডির এএসপি সারোয়ার কবির, এএসআই হাসিনুর রহমান ও কনস্টেবল আহসানুল হকের জামিন আবেদন করা হয়। বিচারক শিশির কুমার বসু তাঁদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এই মামলায় আজকের দিন পর্যন্ত মোট ৬ জনের বক্তব্য রেকর্ড করা হয়েছে। এ ছাড়া ৮ থেকে ১০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, সিআইডির কাছে লুৎফরের প্রতারণার বিষয়ে প্রথম অভিযোগকারী আসামি ফসিহ উল আলম পলাশ সিআইডির সোর্স হিসেবে কাজ করতেন। তাঁর সঙ্গে লুৎফরের লেনদেন নিয়ে বিরোধ ছিল। ২৩ আগস্ট তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে সিআইডির সদস্যরা লুৎফরের বাড়িতে যান। তাঁকে না পেয়ে তাঁর স্ত্রী ও ছেলেকে ধরে নিয়ে আসেন। স্বজনদের কাছে মুক্তিপণ চাওয়া হয়। সেই মুক্তিপণের টাকা নিতে গিয়ে জনতার হাতে আটক হন সিআইডির তিন সদস্য। পরে সিআইডির তিন সদস্যসহ ১০ জনের নামে মামলা করেন লুৎফরের ছেলে জাহাঙ্গীর।

About বীরগঞ্জ টুয়েন্টি ফোর

Check Also

বীরগঞ্জে ইঁদুর নিধন অভিযানের শুভ উদ্বোধন

মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ দিনাজপুরের বীরগঞ্জে আসুন, সম্পদ ও ফসল রক্ষায় সম্মিলিতভাবে ইঁদুর নিধন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *